ত্বক ফর্সা করার উপায় | Jemon Blog
ঢাকাসোমবার - ৩০ আগস্ট ২০২১
  1. অনলাইন জব
  2. গল্প জানুন
  3. টেক আপডেট
  4. লাভ স্টোরি
  5. সাকসেস লাইফ
  6. সোস্যাল আপডেট
  7. হেলথ টিপস

ত্বক ফর্সা করার উপায়

যেমন ব্লগ ডেক্স
আগস্ট ৩০, ২০২১ ৯:০৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ad

আমরা সকলেই কমবেশি সুন্দর উজ্জ্বল এবং স্বাস্থ্যসম্মত ত্বকের অধিকারী হতে চাই। তাই নিজের ত্বককে আরও সুন্দর এবং আকর্ষনীয় করে গড়ে তুলতে বাজারজাতকৃত ক্রিম ব্যবহার করে থাকি। এগুলো আমাদের ত্বককে উজ্জ্বল ও সুন্দর করার পরিবর্তে ত্বকের পুষ্টি গুনাগুন নষ্ট করে দেয়। ফলে আমাদের ত্বক ক্রমশ নষ্ট হয়। ত্বক ফর্সা করার উপায় নিয়ে এখন আলোচনা করব।

এই জন্যই আমাদের উচিত বাজারজাতকৃত পণ্য ব্যবহার না করে ঘরোয়া বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদানের তৈরি উপকরণ ব্যবহার করা উচিত। চলুন দেখে নেয়া যাক ঘরোয়াভাবে ফর্সা হওয়ার উপায় এবং উপকারিতা:

  •  ময়দা দিয়ে চেহারা সুন্দর করার উপায়! কি কি উপাদান প্রয়োজন: ময়দা: সামান্য পরিমাণ, দুধ: পরিমাণমতো

ব্যবহারবিধি:

প্রথমে একটি পাত্রে সামান্য পরিমাণে ময়দা যেটুকু আপনি মুখে পেস্ট তৈরিতে ব্যবহার করবেন ওই পরিমাণ ময়দা নিতে হবে। এরপর ওই ময়দার মধ্যে সামান্য পরিমাণ দুধ দিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। ঠিক ততটা পরিমাণ ময়দা ও দুধ ব্যবহার করবেন যতটা একটি পেস্ট তৈরি তে ব্যবহার করা হয়। এটি মুখে লাগিয়ে সর্বোচ্চ ১০ মিনিট যাবত অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে মুখ ভালোভাবে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন এটি সন্ধ্যায় অথবা রাতে ব্যবহার করুন।

প্যাকটির গুনাগুন:

দুধের মধ্যে উপস্থিত যে প্রাকৃতিক উপাদান গুলো রয়েছে সেগুলো ত্বকের মসৃণতা এবং উজ্জলতা বাড়াতে সাহায্য করে। এটি আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ানোর জন্য একটি সহজ উপায়।

ad
  • ত্বক উজ্জল করতে হলুদের ব্যবহার
আরো পড়ুনঃ  লাভ স্টোরি মন কেড়ে নেয় - ১

কি কি উপকরণ ব্যবহার করতে হবে

  • হলুদ: ১ চা চামচ বা পরিমাণমতো
  • পানি: পরিমাণ মতো

ব্যবহারবিধি:

একটি বাটিতে 1 চা চামচ বা সামান্য পরিমাণ হলুদের গুঁড়া নিয়ে নিয়ে নিতে হবে। সামান্য পরিমাণ পানি দিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন ঠিক ততটাই করবেন যতটা পাতলা হলে আপনার মুখের জন্য প্রয়োজন। প্যাকটি আপনার মুখে ভালো মতো লাগিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট যাবত অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে অথবা কুসুম গরম পানি দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে দুই দিন এটি ব্যবহার করুন।।

হলুদে থাকা গুনাগুন:

হলুদের মধ্যে থাকা উপাদান দ্রুত আপনার ত্বককে উজ্জ্বল ও ফর্সা করতে সাহায্য করে। হলুদের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান যা আমাদের ত্বককে সমস্ত রকম থেকে ধুলোবালি থেকে রক্ষা করে এছাড়াও হলুদ মুখে লাগানোর পাশাপাশি দৈনন্দিন খালি পেটে এক টুকরো করে খেলেও আমাদের ত্বক ধীরে ধীরে হয়ে উঠবেন মসৃণ এবং উজ্জ্বল।।

৩) ত্বকের সৌন্দর্যে লেবুর ব্যবহার

  • উপকরণ
  • ২ চা চামচ লেবুর রস
  • ২ চা চামচ মধু

ব্যবহারবিধি:

প্রথমে একটি পাত্রে ২ চামচ লেবুর রস নিন। লেবুর রসের সাথে মধু দু’চামচ ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এরপরেইঠ সংমিশ্রণটি মুখে ভালভাবে লাগিয়ে নিন। ৫ থেকে ৭ মিনিট অপেক্ষা করুন। মিশ্রণটি শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ভালো ভাবে ধুয়ে নিন।

আরো পড়ুনঃ  খারাপ কাজের ফলাফল!

লেবুতে থাকা গুনাগুন:

লেবুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি যা আমাদের ত্বককে স্বচ্ছ এবং উজ্জ্বল করে তুলতে সাহায্য করে। লেবুতে থাকা ভিটামিন সি এর দ্বারা আমাদের ত্বকের রোদে পোড়া দাগ খুব সহজেই উঠে যায় এবং ত্বক উজ্জ্বল স্বাস্থ্যসম্মত হয়ে ওঠে|

4) রূপচর্চায় টমেটোর ব্যবহার

উপকরণ

  • টমেটো একটি
  • মধু ১ চা চামচ

ব্যবহারবিধি:

প্রথমে একটি পাত্রে একটি টমেটো একটু ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। এরপরে ব্লেন্ড করা টমেটোর মধ্যে ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে নিন। তৈরিকৃত ফেসপ্যাকটি ভালো করে মুখে লাগিয়ে নিন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। প্যাকটি শুকিয়ে গেলে হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

টমেটোতে থাকা গুনাগুন:

টমেটোতে থাকা ভিটামিন সি আমাদের ত্বককে উজ্জ্বল ও ফর্সা করতে সাহায্য করে। ত্বকের মধ্যে থাকা লাইকোপিন নামক উপাদান ত্বকের আদ্রতা প্রদান করে থাকে এবং ত্বকের উপরে থাকে মৃত কোষ গুলোকে সরিয়ে ত্বকের টান দূর করতে সাহায্য করে টমেটো।। এছাড়াও টমেটো রোদে পোড়া দাগ দূর করতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

5) ত্বকের উজ্জ্বলতা রক্ষা করতে শসার ব্যবহার

উপকরণ

  • শসার রস 2 টেবিল চামচ
  • লেবুর রস 1 টেবিল চামচ

কিভাবে ব্যবহার করতে হবে:

প্রথমে একটি পাত্রে ৩ চামচ শসার রস নিয়ে নিন। এরপর ঐ পাত্রের শসার রসের সাথে ৩ টেবিল চামচ লেবুর রস ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। তৈরিকৃত মিশ্রণটি মুখে ১০ থেকে ১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। মিশ্রণটি শুকিয়ে গেলে পরিষ্কার ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি প্রতিদিনব্যবহার করতে পারেন। এক সপ্তাহের মধ্যে আপনি আপনার স্কিনের তফাৎটা বুঝতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ  অদ্ভুত দুনিয়ার কুসংস্কার

সতর্কতাঃ মুখে কোন প্রকার সাবান বা ফেসওয়াশ ব্যবহার করবেন না।

কিভাবে শসা ত্বকের সাহায্য করে:

শসা তে রয়েছেপ্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান। এন্টি অক্সিডেন্ট উপাদান ত্বকের ভিতর থেকে উজ্জলতা প্রদান করতে সাহায্য করে। এছাড়াও শসার সবচেয়ে ভালো দিক হচ্ছে শসা টোনারের কাজ করে। গরমের দিনে বাইরে থেকে এসে মুখে শসার রস কিছু সময়ের জন্য লাগালে ক্লান্তি দূর হয় এবং ত্বকের পুরনো উজ্জ্বলতা ফিরে পায়।

সুন্দর উজ্জ্বল মসৃণ ত্বকের জন্য কি কি করা উচিত এবং কি কি করা উচিত নয়:

সুন্দর ত্বকের জন্য কেবলমাত্র পরিচর্যায়ও যথেষ্ট নয়। পরিচর্যার পাশাপাশি প্রয়োজন স্বাস্থ্যকর খাদ্য, সঠিক ব্যায়াম এবং স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন। এগুলো ভিতর থেকে সৌন্দর্য প্রদান করবে। সবচেয়ে আকর্ষণীয় উজ্জ্বল করার জন্য বিভিন্ন রকম সুষম ও স্বাস্থ্যসম্মত খাবার গ্রহণ করা উচিত।

এছাড়াও বাজারজাতকৃত রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার না করে ঘরে বসেই প্রাকৃতিক টিপসগুলো মেনে ধীরে ধীরে আপনারা নিজেদেরকে সুন্দরী করে তুলতে পারেন সেটা স্বাস্থ্যসম্মতভাবে। সুন্দর ও উজ্জ্বল ত্বক পাওয়ার জন্য অবশ্যই শরীরকে আগে স্বাস্থ্য গুনাগুন মেনে গড়ে তুলতে হবে।