দিনের শুরুটা কেমন হওয়া উচিত? | Jemon Blog
ঢাকাশুক্রবার - ২৬ নভেম্বর ২০২১
  1. অনলাইন জব
  2. গল্প জানুন
  3. টেক আপডেট
  4. লাভ স্টোরি
  5. সাকসেস লাইফ
  6. সোস্যাল আপডেট
  7. হেলথ টিপস

দিনের শুরুটা কেমন হওয়া উচিত?

যেমন ব্লগ ডেক্স
নভেম্বর ২৬, ২০২১ ১০:০২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ad

আমরা দিনের শুরুটা এমনভাবে শুরু করে যা কোন বই কিতাব এর সাথে সম্পর্কিত না আমরা শুরু করি সকাল ৯ টায় ঘুম থেকে উঠে উঠে কম্বলের নিচে আরো একঘন্টা মোবাইল চালাই অর্থাৎ চ্যাটিং করে ফেসবুকে করি, এরপরে ১০ টা নাগাদ উঠে ফ্রেশ হয়ে নাস্তা করি এর পরে বের হয়ে বাজারে চলে যাই এটা সামাদের ডেইলি রুলস। বিশেষ করে যারা বেকারত্ব ভোগ করছে যারা বেকার রয়েছে তাদের জীবনের রুশ এটাই এই চরম রুলস থেকে আপনাকে ব্যতিক্রমী কোন একটা রোজ তৈরি করতে হবে।

আপনার উচিত ফজরের নামাজের সময় যথারীতি ঘুম থেকে ওঠা এবং ফজরের নামাজ আদায় করা শারীরিক ব্যায়াম করা অতঃপর নিজের কাজে মনোযোগ দেয়া। আমরা এটা জানি যে রাতে দেরি করে ঘুমালে এবং ফজরে দেরি করে উঠলে আয়ু অর্থাৎ ছোট হয়ে যায় তাই এই বিষয়টা আমাদের লক্ষ্য করা উচিত বিশেষ করে আমাদের শরীর প্রচুর ক্লান্ত হয়ে যায়।

নিয়ম অনুযায়ী আমরা যদি যথারীতি আমাদের শরীরকে প্রশস্তি করতে চাই সে ক্ষেত্রে আমাদের উচিত রাতে দ্রুত ঘুমিয়ে পড়া এবং সকালে ঘুম থেকে উঠে নিজের কাজে মনোযোগী হওয়া। নিজের কাজে মনোযোগী হতে এই কাজটি আপনার জন্য খুবই শান্তিদায়ক হতে পারে। মনে রাখবেন ফজরের দিকে কাজ করার মজাই অন্যরকম, কাজে অনেক বেশি মনোযোগী হওয়া যায় অনেক বেশি কাজ করা যায় মন একদম ফ্রেশ থাকে।

আরো পড়ুনঃ  খারাপ কাজের ফলাফল!

ফজরের সময় খুব বেশি মনোযোগ থাকার ফলে কাজে বেশি মনোযোগী হওয়া যায় একদম সঠিক ভাবে হয় আর আমরা যেটা করে থাকে সেটা হচ্ছে গভীর রাতে কাজ করতে থাকে যখন আমাদের মাথা একদমই ঠিক থাকেনা কাজ ঠিকমতো করতে পারেনা আমাদের প্রচুর সমস্যা হয়ে থাকে।

ad

আমি যদি সঠিকভাবে নিয়ম করে নেই একটা রুটিন করে নেই যে প্রত্যেক দিন দেরি করে না ঘুমিয়ে দ্রুত ঘুমিয়ে পড়বো এবং যত দ্রুত সম্ভব আমরা তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠে আমাদের কাজে এটেন্ড করব তাহলে দৈনন্দিন জীবনে আমরা সফলতা দেখতে পাবো। সফলতা কিন্তু শুধু আমাদের চেষ্টায় আসবেনা আল্লাহর কিছু নির্দেশাবলী পালন করতে হয়।

আরো পড়ুনঃ  লাভ স্টোরি ভালবাসার অন্যতম গল্প ২

মালিকের এই নির্দেশনা গুলো পালন করে আমরাও পারি সঠিকভাবে সঠিক নিয়মে আমাদের সফলতার কাছে পৌঁছাল। সকল বাধা অতিক্রম করে মালিকের নিকট এই কাজটি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।আমরা যদি সঠিকভাবে সঠিক নিয়মে যোগাযোগ করি তাহলে আমরা সফলতার চূড়ায় পৌঁছাতে পারবো ‌। অতঃপর দিনের শুরুটা আমাদের হওয়া উচিত ইবাদাতের মাধ্যমে কিন্তু তা না করে উল্টো কাজটা করে থাকি।