মাইক্রোফোন কেনার মাধ্যমে ইউটিউবিং শুরু করা | Jemon Blog
ঢাকাসোমবার - ১৫ নভেম্বর ২০২১
  1. অনলাইন জব
  2. গল্প জানুন
  3. টেক আপডেট
  4. লাভ স্টোরি
  5. সাকসেস লাইফ
  6. সোস্যাল আপডেট
  7. হেলথ টিপস

মাইক্রোফোন কেনার মাধ্যমে ইউটিউবিং শুরু করা

যেমন ব্লগ ডেক্স
নভেম্বর ১৫, ২০২১ ২:২৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ad

মাইক্রোফোন! ২০১৬ ষোল সালে আমি ইউটিউবে নি শুরু করেছিলাম তখন আমার ইনভেস্ট করার ক্ষমতা ছিল না বললেই চলে অর্থাৎ ইনভেস্ট করতে পারবে এমন কোনো ইচ্ছর মধ্যে ছিল না এরপরে আমি ইউটিউবে কি দিয়ে করবো। ইউটিউবিং করার জন্য যে প্রস্তুতি যে গেজেটসমূহ লাগে সেগুলো আমার নেই আমি কি দিয়ে শুরু করবো বহুৎ চিন্তা এভাবে এক বছর প্রায় কেটে গেছে আমার হাতে কোন প্রোডাক্ট নেই ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব ১৫৪টা এই সাবস্ক্রাইব গুলো আবার বন্ধুদের থেকে ধার নিয়েছি।

এভাবে কতদিন চলবে বাসা থেকে বকা যখা দিয়েই যাচ্ছে সারাদিন মোবাইল নিয়ে পড়ে থাকো কোন কাজ বাজ কিছু করস না আর ঘরের টাকা দিয়ে এমবি কিনে এভাবে কয়দিন চলা যায় গ্রামে যেতে থাকে এর কোনো সিস্টেম নেই এমবি দিয়া দিয়া এভাবে কিউটিং করা সম্ভব পাগলা আমি হাল ছাড়ি নাই। মাইক্রোফোন

এভাবে আরো কযেকমাস যাওয়ার পরে বাসা থেকে সিস্টেম করে ১,০০০ টাকা নিলাম নেওয়ার পরে বিডি শপে ঢুকলাম একটা ছোট ডিসকাউন্ট ছিল সেখানে অর্ডার করলাম একটা মাইক্রোফোন একটা মোবাইল স্ট্যান্ড। কদিনের মধ্যে ডেলিভারি পেলাম তা আবার বাসা থেকে অনেক দূরে গিয়ে রিসিভ করতে হয় অর্থাৎ যাওয়া-আসা ১০০ টাকা গাড়ি ভাড়া কেমনটা লাগে বলেন?

আরো পড়ুনঃ  গুগল এডসেন্স কি?

তাও টাকা টাকা ধার ভার কইরা বন্ধুদের কাছ থেকে গেলাম গিয়ে রিসিভ করলাম প্রোডাক্ট প্রোডাক্ট গাড়িতে বসে অবশ্য আনবক্সিং করা কমপ্লিট জীবনের প্রথম কোন কুরিয়ার সার্ভিস প্রোডাক্ট পাঠানোর রিসিভ করলাম কতক্ষণ অপেক্ষা করা যায় প্রোডাক্ট আনবক্সিং এর ক্ষেত্রে অপেক্ষা করতে না পারায় প্রোডাক্ট গাড়িতে বসেই আনবক্সিং কমপ্লিট করলাম।

ad

অভাবে আনবক্সিং করার পরে যে অর্ডার করলাম সব গুলো ঠিকঠাক ছিল এর পরে বাসায় আসলাম অবশ্য ঘর থেকে দেখলো এগুলো কি বললাম যে এগুলো দিয়া এরকম কথা বলে সাউন্ড ভালো হয় এরকম ভিডিও করে আর কিছু বলবো না তারা পাগলামো এরকম মনে করলো কি আর করার আমার তো নেশা হয়ে গেছে করতে হবে।

মাইক্রোফোন কেনার মাধ্যমে!

এ পর্যায়ে ভিডিও তৈরি করতাম কিন্তু নতুন কোন আইডিয়া মাথায় আসতো না ইউটিউব এ সার্চ করে করে পোলাপানগুলা ভিডিওগুলো দেখে দেখে যারা আইডিয়া নিয়ে তার উপর ভিডিও করতাম মোবাইল দিয়ে ভিডিও করতে মোবাইল দিয়ে ইডিট করতাম একটা ভিডিও আপলোড করতে চার ঘণ্টা সময় লাগত আমার নেটের স্পিড এত কম।

আরো পড়ুনঃ  ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম

পাগলা ধৈর্য আমি হারাইনি এভাবে কাজ করে যেতাম। অনেকগুলো ভিডিও চ্যানেল হয়েছে অলমোস্ট ১৫০+ ভিডিও আমার ইউটিউব চ্যানেলে হয়ে গেছে কিন্তু চ্যানেলে তখন সাবস্ক্রাইভ আসেনা বর্তমানে ২০২১ সালে এসে এখন সাবস্ক্রাইভ সংখ্যা ১,৫০০+কিন্তু আজ টাইম কমপ্লিট হয় নাই যেটা আমার জন্য খুবই দুঃখজনক। অর্থাৎ ৬ বছর বয়সেও আমি এটা কমপ্লিট করতে পারিনি তাহলে বুঝতে পারছেন আমি কতটা এগোতে পেরেছি। মাইক্রোফোন

এরপরে আমি কি করবো কোন ভিসা পাচ্ছি না কেউ সাপোর্ট করছে না কাউকে মেসেজ করলে রিপ্লাই করছে না সবাই ইগনোর করছে যে যার মতো করে উঠে যাচ্ছে আমি পড়ে আছি পিছনে কারন আমার ইনভেস্ট করার ক্ষমতা নেই ভালো কোয়ালিটির ভিডিও তৈরি করতে পারছিনা ল্যাপটপ কম্পিউটার ডেস্কটপ কিছুই নেই এডিট করার জন্য মোবাইল দিয়ে কাইনমাস্টার ছিল আমার কাছে এর বাইরে আমার কাছে কিছু নেই। মাইক্রোফোন

এভাবে করতে থাকলাম এক পর্যায়ে দেখি কোন ফলাফল পাচ্ছিনা সাবস্ক্রাইব বাড়ছেনা ভিডিওগুলো মানুষ দেখছে না যার ফলে আমার হোয়াটস টাইম বাড়ছে না। খুবই হতাশা ভোগ করছি নিজের ভিতর অনেক বেশি খারাপ লাগছে কষ্ট হচ্ছে কিছু করার নাই হাল ছেড়ে দিলাম যাও তোমার পথ তুমি দেখো আমার পথ আমি দেখি।

আরো পড়ুনঃ  কিভাবে ইমু একাউন্ট খুলতে হয়

চিটিংবাজ এর পরে চ্যানেল ওভাবেই পড়ে থাকব এখন রেখে আস্তে আস্তে ভিজিটর আসে সাবস্ক্রাইব বাড়ে কিন্তু এখন আমার কাজ করার কোনো ইচ্ছে নেই এখন আমি নিজের মতো করে একটা অনলাইন পোর্টাল কন্টিনিউ করে যাচ্ছি এবং এটা মোটামুটি অনেক বেশি বড় হয়েছে একটা জাতীয় পোর্টাল।

তাই বলি যখন ইচ্ছে থাকে তখন সময় থাকেনা আর যখন সময় থাকে তখন ইচ্ছে থাকে না যখন টাকা নেই তখন ইউটিউবিং করার কত ইচ্ছা আমার মধ্যে প্রোডাক্ট কিনতে পারিনি আর এখন কত টাকা হয়েছে কিন্তু ইউটিউব ইন করার ইচ্ছে আমার মধ্যে মোটেও নেই ‌‌ অবশ্য এই জিনিসটার মাধ্যমে আমি অনেক কিছু শিখতে পেরেছি। মাইক্রোফোন

যাইহোক প্রোডাক্ট কেনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করলাম আমার জীবনের প্রথম প্রোডাক্ট কেনা হয়েছিল বিডি শপ কোম্পানি থেকে।